Image result for ভারতের সংবিধান এবং গণপরিষদ

ভারতের সংবিধান এবং গণপরিষদ

Advertisements

ভারতের সংবিধান এবং গণপরিষদ

 সংবিধান কাকে বলে

  • যেসব নিয়মের মাধ্যমে রাষ্ট্র পরিচালিত হয়, তাকে সংবিধান বলে।

গণপরিষদ গঠন [Constituent Assembly]

গণপরিষদ কি –

  • গণপরিষদ হল ভারতের সংবিধান রচনার জন্য বিভিন্ন প্রদেশের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত একটি পরিষদ ।

গণপরিষদ গঠনের ইতিহাস

  • দেশে গণপরিষদ গঠনের দাবি প্রথম তোলেন মানবেন্দ্রনাথ রায় (ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিষ্ঠাতা) ১৯৩৪ সালে।
  • সরকারি ভাবে প্রথম দাবি ওঠে ১৯৩৫ সালে। কংগ্রেস এই দাবি তোলে।
  • তারপর ১৯৩৮ সালে ভারতীয় কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জওহরলাল নেহেরু বলেন – স্বাধীন ভারতের সংবিধান তৈরিতে কোনও বাইরের দেশের বা কারোর প্রভাব থাকা চলবে না এবং ভারতীয় গণপরিষদই এই সংবিধান তৈরি করবে।
  • অবশেষে গণপরিষদ গঠনের দাবি ব্রিটিশ সরকার মেনে নেয় ১৯৪০ সালে এবং এই নিয়ে একটি প্রস্তাব দেয় যা আগস্ট অফার (৮ অগস্ট) নামে পরিচিত ।
  • উল্লেখ করা যায় ১৯৪২ সালে ক্যাবিনেট মেম্বার স্যার স্টাফোর্ড কৃপ্স ভারতে আসেন এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে ভারতের সংবিধান গঠনের প্রস্তাব দেন। এই প্রস্তাবে ভারতকে ভেঙে দুটো আলাদা দেশে ভাগ করার কথা বলা হয় কিন্তু মুসলিম লীগ সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেয়।
  • তারপর ক্যাবিনেট মিশন ভারতে পাঠানো হয় যেখানে মুসলিম লীগ কে খুশি করার জন্যে কিছু প্রস্তাব রাখা হয় এবং ভারতকে ভেঙে দুটো আলাদা দেশে ভাগ করার কথা খারিজ করে দেয়।

গণপরিষদ কবে গঠিত হয় –

  • ক্যাবিনেট মিশন প্লান এর সুপারিশ অনুযায়ী ১৯৪৬ খ্রিস্টাব্দে

গণপরিষদের বৈশিষ্ট:

  • গণপরিষদের প্রাথমিক সদস্য সংখ্যা হবে ৩৮৯ যার মধ্যে ২৯২ জন সদস্য ব্রিটিশ ইন্ডিয়া (যারা নির্বাচিত হবেন) এবং ৯৩ জন সদস্য প্রিন্সলি স্টেট (যাদের কে মনোনীত করা হবে) এর থেকে নেওয়া হবে। ২৯২ টা সিট এর জন্য নির্বাচন ১৯৪৬ সালের july-august মাসে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কংগ্রেস ২০৮, মুসলিম লীগ ৭৩ টা এবং অন্যানো রা ১৫ টা সিট জিতেছিল।
  • মুসলিম লীগ গণপরিষদ থেকে ত্যাগ করলে সদস্য সংখ্যা হয় ২৯৯ যার মধ্যে ২২৯ জন (২৯২ জন থেকে কমে) সদস্য ভারতীয় প্রভিন্স বা যারা আগে ব্রিটিশ ইন্ডিয়া নামে পরিচিত ছিল এবং ৭০ (৯৩ জন থেকে কমে) জন সদস্য প্রিন্সলি স্টেট এর প্রতিনিধিত্ব করবেন।

গণপরিষদে কতজন সদস্য সংখ্যা-

  • গণপরিষদের প্রাথমিক সদস্য সংখ্যা ছিল ৩৮৯ । পরে মুসলিম লীগের প্রতিনিধিরা গণপরিষদের সদস্যপদ ত্যাগ করার পর গণপরিষদের সদস্য সংখ্যা হয় ২৯৯ ।
  • গণপরিষদ গঠনে কমিউনিস্ট পার্টি অফ ইন্ডিয়া অংশগ্রহণ করে নি।

প্রথম অধিবেশন-

  • ১৯৪৬ খ্রিস্টাব্দের ৯ ই ডিসেম্বর থেকে ২৩ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত গণপরিষদের প্রথম অধিবেশন বসে। মুসলিম লীগ এই অধিবেশন বয়কট করে পাকিস্তান দেশ গঠন এর দাবি নিয়ে।
  • মোট ১১ টি অধিবেশন বসেছিল
  • ১৯৫০ সালের ২৪সে জানুয়ারী বিশেষ অধিবেশনে সকলে উপস্থিত হয় এবং সাক্ষর প্রদান করেন।

সভাপতি-

  • সচ্চিদানন্দ সিনহা ছিলেন গণপরিষদের প্রথম সভাপতি। তাকে অস্থায়ীভাবে গণপরিষদের সভাপতি নির্বাচন করা হয়। পরে রাজেন্দ্র প্রসাদকে গণপরিষদের সভাপতি নির্বাচন করা হয়।
  • হরেন্দ্র কুমার মুখার্জী (Harendra Coomar Mukherjee) এবং ভি টি কৃষ্ণামাচারি (Vangal Thiruvenkatachari Krishnamachari) গণপরিষদের সহ সভাপতি নির্বাচিত হন ।

Objective Resolution:

  • ১৯৪৬ সালের ১৩ই ডিসেম্বর জওহরলাল নেহেরু ঐতিহাসিক Objective Resolution উত্থাপন করেন যা সংবিধান রচনা ও তার গঠনে বিশেষ ভূমিকা রাখে। এখানে বলা হয় ভারতের সংবিধান কেমন হওয়া উচিত এবং ভারতের territorial গঠনমূলক একতা, দেশ ও রাজ্য শাসন, ভারতবাসীর নিরাপত্তা, সুবিচার সমাজ ব্যবস্থা, সংখ্যালঘু দের নিরাপত্তা, সকলের জন্যে সমতা ইত্যাদি।
  • এই Objective Resolution সর্বসম্মত ভাবে 1947 সালের 22 শে জানুয়ারী গণপরিষদ দ্বারা সর্বসম্মত ভাবে মেনে নেওয়া হয়। এই অব্জেক্টিভ রেসলিউশন এর সংশোধিত সংস্করন ই আমরা পরবর্তীতে ভারতের প্রস্তাবনা হিসাবে দেখতে পাই।

গণপরিষদের বিভিন্ন কমিটি:

Sr. No. Name of the Committee Chairman
1 Drafting Committee BR Ambedkar
2 Committee on the Rules of Procedure Rajendra Prasad
3 Steering Committee Rajendra Prasad
4 Finance and Staff Committee Rajendra Prasad
5 Ad-hoc Committee on the National Flag Rajendra Prasad
6 Union Powers Committee Jawaharlal Nehru
7 Union Constitution Committee Jawaharlal Nehru
8 States Committee (Committee for Negotiating with State) Jawaharlal Nehru
9 Provincial Constitution Committee Sardar Vallabbhai Patel
10 Advisory Committee on Fundamental Rights, Minorities and Tribal and Excluded Areas Sardar Vallabbhai Patel

Subcommittee under Advisory Committee

1 Fundamental Rights Sub-Committee JB Kripalani
2 Minorities Sub-committee HC Mookherjee
3 North-East Frontier Tribal Areas and Assam, Excluded and Partially Excluded Areas Sub-Committee Gopinath Bardoloi
4 Excluded and Partially Excluded Area (other than those in Assam) Sub-Committee AV Thakur
  Some other Committee  
1 Credential Committee Alladi Krishnaswami Ayyar
2 House Committee B Pattabhi Sitaramayya
3 Order of Business Committee KM Munshi
4 Committee on the Functions of the Constituent Assembly GV Mavalankar

খসড়া কমিটির উত্পত্তি

খসড়া কমিটি কেন গঠন করা হয়-

  • সংবিধানের একটি নমুনা বা খসড়া প্রস্তুত করার উদ্দেশ্যে কমিটি গঠন করা হয়। খসড়া কমিটির হাতে সংবিধানের চূড়ান্ত রূপ দেওয়ার দায়িত্ব অর্পণ করা হয় ।

কবে গঠিত হয়

  • ১৯৪৭ সালের ২৯ আগস্ট ড. বি. আর. আম্বেদকরের নেতৃত্বে খসড়া কমিটি গঠিত হয়।

সভাপতি কে ছিলেন

  • বি. আর আম্বেদকর।ডঃ ভীমরাও রামজি আম্বেদকর ছিলেন ভারতীয় সংবিধানের স্থপতি ।

কতজন সদস্য ছিল

  • ড. আম্বেডকর ছাড়াও এই কমিটিতে আরও ছয় জন সদস্য ছিলেন। (মোট ৭ জন সদস্য)

খসড়া কমিটির অবদান

  • বিভিন্ন কমিটির নানান প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করে খসড়া কমিটি তার প্রথম খসড়া প্রস্তুত করে এবং টা প্রকাশিত করা হয়ে ১৯৪৮ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে। তারপর ৮ মাস ধরে সেই খসড়া নিয়ে আলোচনা করা হয় এবং নানা সমালোচনা, পরামর্শ এবং সংশোধনের সুপারিশ এর পর দ্বিতীয় খসড়া প্রকাশিত হয় ১৯৪৮ সালের অক্টোবর মাসে।
  • পরিশেষে কমিটি তার চুড়ান্ত খসড়া সংবিধান প্রস্তুত করে সেটি ১৯৪৭ সালের ৪ নভেম্বরের মধ্যে গণপরিষদে পেশ করেন।
  • ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দের ২৬ শে নভেম্বর সেটি গণপরিষদে গৃহীত হয় এবং স্থির হয় ১৯৫০ খ্রিস্টাব্দের ২৬ শে জানুয়ারি দিনটি থেকে এই সংবিধান কার্যকর হবে ।
  • একাধিকবার পর্যালোচনা ও সংশোধন করার পর ১৯৫০ সালের ২৪ জানুয়ারি গণপরিষদের মোট ৩০৮ জন সদস্য সংবিধান নথির দুটি হস্তলিখিত কপিতে (একটি ইংরেজি ও একটি হিন্দি) সই করেন।
  • ১৯৫০ খ্রিস্টাব্দের ২৬ শে জানুয়ারি দিনটি থেকে এই সংবিধান কার্যকর হয়।
  • তারপর থেকে পরবর্তী ৬০ বছরে ভারতের সংবিধানে মোট ১১৩টি সংশোধনী আনা হয়েছে।
  • গণপরিষদ সংবিধান রচনা করতে ২ বছর ১১ মাস ১৮ দিন সময় নিয়েছিল।
  • এই সময়কালের মধ্যে ১৬৬ দিন গণপরিষদের অধিবেশন বসে।

উল্লেক্ষ,কুড়ি বছর আগে ১৯৩০ খ্রিস্টাব্দের ২৬ শে জানুয়ারি ভারতবাসী প্রথম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেছিল । সেই শুভ দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্যই ২৬ শে জানুয়ারি দিনটি বেছে নেওয়া হয় । ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দের ২৬ শে নভেম্বর গণপরিষদে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুসারে ১৯৫০ খ্রিস্টাব্দের ২৬ শে জানুয়ারি থেকে ভারতের নতুন সংবিধান বলবৎ হয় ।

ভারতীয় সংবিধানের সমালোচনা:

  • গণপরিষদ এর সদস্যরা ভারতের জনগন দ্বারা সরাসরি ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করা হয়নি।
  • গণপরিষদ সার্বভৌম নয় কারণ এটা ইংরেজদের প্রস্তাব অনুযায়ী গঠন করা হয়েছিল। তাছাড়া গণপরিষদ তার অধিবেশন ইংরেজ সরকারের অনুমতি নিয়ে শুরু করেছিল।
  • গণপরিষদ ভারতের সংবিধান তৈরি করতে অনেক সময় নিয়ে ফেলেছিল – ২ বছর ১১ মাস ১৮ দিন সময় নিয়েছিল
  • গণপরিষদ ভারতের জাতীয় কংগ্রেস দ্বারা পরোক্ষ ভাবে পরিচালিত হয়েছিল।
  • গণপরিষদ এর উপরে হিন্দুদের প্রভাব যথেষ্ট ছিল।
  • গণপরিষদ এ রাজনীতি এবং আইনজ্ঞ দের দ্বারা প্রভাবিত ছিল। অন্য সম্প্রদায় এর প্রতিনিধিরা যথেষ্ট পরিমাণে প্রতিনিধিত্ব করতে পারে নি।

 

0 thoughts on “ভারতের সংবিধান এবং গণপরিষদ”

  1. এখানে সবই দিয়েছেন কিন্তু জিনিস গুলো আর একটু details হলে ভালো হতো… বিশেষ করে গণপরিষদ এর গঠন টা ঠিক বলতে পারেননি… গণপরিষদ এর extra করে একটা bolg বানাবেন

    1. sahajpathclasses

      কমেন্ট করার জন্য ধন্যবাদ আসিফ হাসান। আশা করি আমাদের পোস্ট টি আপনার ভাল লেগেছে। অবশ্যই এই টপিক এর উপরে আমরা ভবিষ্যতে আরো ভাল পোস্ট বানাবো। সঙ্গে থাকুন।

  2. এখানে সবই দিয়েছেন কিন্তু জিনিস গুলো আর একটু details হলে ভালো হতো… বিশেষ করে গণপরিষদ এর গঠন টা ঠিক বলতে পারেননি… গণপরিষদ এর extra করে একটা bolg বানাবেন

    1. sahajpathclasses

      কমেন্ট করার জন্য ধন্যবাদ আসিফ হাসান। আশা করি আমাদের পোস্ট টি আপনার ভাল লেগেছে। অবশ্যই এই টপিক এর উপরে আমরা ভবিষ্যতে আরো ভাল পোস্ট বানাবো। সঙ্গে থাকুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 1 =

error:
Scroll to Top